ঘুম নেই কামারপাড়ায়

আসন্ন কোরবানীর ঈদকে সামনে রেখে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার কামাররা ব্যস্ত সময় পার করছেন। কাক ডাকা ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে দা, বটি ছুরি ও চাপাতি তৈরীর কাজ। সারা বছর কাজ না থাকলেও কোরবানীর ঈদের এ সময়টা বরাবরই ব্যস্ত থাকতে হয় তাদের। এখন দম ফেলার সময়ও নেই তাদের। পশু জবাইয়ের হাতিয়ার মেরামত করতে ও কিনতে লোকজন ভীড় করছেন তাদের দোকানে। উপজেলার বিভিন্ন বাজারে কামারের দোকানগুলোতে শোভা পাচ্ছে গরু, ছাগলসহ বিভিন্ন পশু জবাইয়ের হাতিয়ার।

উপজেলার বিভিন্ন বাজারের কামার পট্টিতে গিয়ে দেখা গেছে, টুলে বসে লোহা পেটাচ্ছেন কারিগররা। লোহাতে হাতুড়ির পিটুনিতে তৈরী হচ্ছে টুং টাং শব্দ। কামারেরা তাদের দোকানের খোঁপে সাজিয়ে রেখেছে তাদের তৈরী দা, বটি ছুরি ও চাপাতি। দোকানের খোঁপে সাজিয়ে রাখা এসব হাতিয়ার তাদের পছন্দমত কিনছেন ক্রেতারা ।
দেশদর্পণে আরও পড়ুন: বানভাসীদের মাঝে চিলমারীতে ত্রাণ বিতরণ

ফুলবাড়ী বাজারে কামার পট্টিতে দা, ছুরি কিনতে আসা ক্রেতা জানান, অন্য সময়ের চেয়ে কোরবানী ঈদের সময় হাতিয়ারে দাম একটু বেশী থাকে।

এদিকে নতুন হাতিয়ার কেনা ও মেরামত বাবত একটু বেশি মূল্য ধরার বিষয়ে কামার দোকানিদের কাছে জানতে চাইলে তারা জানান, বর্তমানে কয়লা ও লোহার দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় আমাদেরও মূল্য একটু বৃদ্ধি করতে হয়েছে।

ফুলবাড়ী বাজারের বয়জোষ্ঠ্য কামার আব্দুর রহিম জানান, সারা বছর কাজ খুব কম থাকে কোরবানি এলে কাজ বেড়ে যায়। প্রতিটি দা বিক্রি হচ্ছে সাড়ে ৩৫০ টাকা, ছোট ছুরি ১শ’ টাকা, বটি ২শ’ টাকা, চাপাতি ৩শ’ থেকে ৩৫০ টাকা।

আগস্ট ১০, ২০১৯ at ১১:৪৯:৩২ (GMT+06)
দেশদর্পণ/আহা/আক/এজিএল/এসজে